Phulkuri Ashar | ফুলকুঁড়ি আসর

ব্যাজ

ব্যাজ
সদস্য ব্যাজ : সদস্য ব্যাজ পেতে হলে কুলকুঁড়ি আসর সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা থাকতে হবে এবং ফুলকুঁড়ি সদস্যের নিয়মিত কাজগুলো করতে হবে।
শাখা পরিচালক প্রধান পরিচালকের অনুমতি সাপেক্ষে সদস্য ব্যাজ প্রদান করতে পারবে।
যেকোন ব্যাজ কেবলমাত্র ফুলকুঁড়ি ইউনিফর্মের সাথে পরিধান করা যাবে।


পারদর্শিতা ব্যাজ পাওয়ার নিয়মাবলী
১। পারদর্শিতা ব্যাজ প্রাপ্তির জন্য প্রধান পরিচালক বরাবর নির্দিষ্ট আবেদপত্র পূরণ করে শাখা পরিচালকের নিকট জমা দিতে হবে।
২। প্রধান পরিচালক অথবা তার প্রতিনিধি আবেদনকারীর যোগ্যতা মূল্যায়ন সাপেক্ষে পারদর্শিতা ব্যাজ প্রদান করবেন।
৩। ব্যাজ প্রাপ্ত ফুলকুঁড়ি নির্দিষ্ট ফি প্রদান সাপেক্ষে ব্যাজ গ্রহণ করবে।

প্রতিটি ব্যাজের জন্য নির্ধারিত শর্তসমূহের যেকোনো ১টি পূরণ সাপেক্ষে পারদর্শিতা ব্যাজ প্রদান করা হবে-


১. ফুলকুঁড়ি শিক্ষা ব্যাজ
ক) স্কুলে বার্ষিক পরীক্ষায় পরপর ৩ বার প্রথম স্থান অর্জন করা।
খ) প্রাথমিক/জুনিয়র শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় বৃত্তি প্রাপ্ত।
গ) নিজস্ব উদ্যোগে পাঠাগার গড়ে তোলা, যাতে কমপক্ষে ২৫টি বই থাকবে।
ঘ) বিতর্ক অনুষ্ঠানে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন।


২. ফুলকুঁড়ি সাহিত্য ব্যাজ 
ক) উল্লেখযোগ্য পত্রিকায় লেখা প্রকাশ।
খ) জাতীয়/আঞ্চলিক পর্যায়ে সাহিত্য প্রতিযোগিতায় পুরস্কার প্রাপ্তি।
গ) পুরস্কারপ্রাপ্ত দেয়ালিকা সম্পাদনা ও প্রকাশে উল্লেখযোগ্য অবদান।


৩. ফুলকুঁড়ি সাংস্কৃতিক ব্যাজ 
ক) জাতীয়/বিভাগীয়/জেলা পর্যায়ে আবৃত্তি, গান, অভিনয়- এ পুরস্কার প্রাপ্তি।
খ) সাংস্কৃতিক অঙ্গনে বিশেষ পারদর্শিতা।


৪. ফুলকুঁড়ি ক্রীড়া ব্যাজ 
খেলাধুলার আইন/নিয়মকানুন সম্পর্কে জ্ঞান থাকতে হবে এবং
ক) আন্তঃস্কুল, মৌসুমী প্রতিযোগিতা, জাতীয়/বিভাগীয়/জেলা পর্যায়ের ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় পুরস্কার প্রাপ্তি।
খ) স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় ব্যক্তিগতভাবে চ্যাম্পিয়ন/রানার আপ হওয়া।
গ) দলীয় প্রতিযোগিতায় নেতৃত্ব দিয়ে বিভাগীয়/জেলা/আন্তঃস্কুল পর্যায়ে শ্রেষ্ঠত্ব।
ঘ) ক্রীড়াঙ্গনে বিশেষ পারদর্শিতা।


৫. ফুলকুঁড়ি শরীরচর্চা ব্যাজ 
ফুলকুঁড়ির মাঠের কাজ, ১০টি পিটি ও ১০টি হুইসেল জানা এবং
ক) বিজয় দিবস/স্বাধীনতা দিবসের মার্চপাস্টে নেতৃত্ব দেয়া।
খ) শরীরচর্চায় বিশেষ পারদর্শিতা/ডিসপ্লে তৈরি।
গ) আনুষ্ঠানিক কুচকাওয়াজের ড্রামবাদকের পারদর্শিতা।
ঘ) ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য পরিচর্যায় স্বীকৃতি।


৬. ফুলকুঁড়ি কৃষি ব্যাজ 
ক) বৃক্ষরোপণ অভিযানের উদ্যোগ ও নেতৃত্ব দেয়া।
খ) ব্যক্তিগত বাগান তৈরি, গাছের সংখ্যা কমপক্ষে ২৫টি হতে হবে।
গ) গাছের কলম/বনসাই তৈরি অথবা সংকর প্রজনন/পরিচর্যা ইত্যাদিতে বিশেষ পারদর্শিতা।


৭. ফুলকুঁড়ি শিল্প ব্যাজ 
ক) আন্তর্জাতিক/জাতীয়/বিভাগীয়/জেলা পর্যায়ে অংকন প্রতিযোগিতায় পুরস্কার প্রাপ্তি।
খ) অংকিত প্রচ্ছদ/চিত্রকর্ম মুদ্রিত বা প্রশংসিত হওয়া।
গ) হস্ত ও কুটির শিল্পে পুরস্কৃত/প্রশংসিত হওয়া।


৮. ফুলকুঁড়ি বিজ্ঞান ব্যাজ 
তথ্য-প্রযুক্তি সম্পর্কে মৌলিক জ্ঞান এবং
ক) জাতীয়/বিভাগীয়/জেলা পর্যায়ে মেলায় বিজ্ঞান প্রজেক্টে পুরস্কার প্রাপ্তি।
খ) নতুন কোনো বিজ্ঞান প্রজেক্ট উদ্ভাবন।
গ) তথ্য- প্রযুক্তিতে বিশেষ পারদর্শিতা অর্জন।


৯. ফুলকুঁড়ি সেবা ব্যাজ 
ক) কমপক্ষে ২জন নিরক্ষরকে অক্ষরজ্ঞান দান।
খ) নিয়মিত কোনো উল্লেখযোগ্য সেবামূলক কাজে অংশগ্রহণ বা সামষ্টিক সেবামূলক কাজে নেতৃত্ব দেয়া।
গ) ফার্স্ট এইডে বিশেষ পারদর্শিতা।
ঘ) সেবা ব্যাংকের কমপক্ষে ৫জন গ্রাহক বৃদ্ধি ও নিয়মিত আদায় করা।


অগ্রপথিক ব্যাজ পাওয়ার নিয়মাবলী 
১. অগ্রপথিক ব্যাজ পাওয়ার যোগ্যতা অর্জন করলে শাখা পরিচালক নির্দিষ্ট আবেদনপত্রে সদস্যের যোগ্যতা উল্লেখপূর্বক দুই কপি সত্যায়িত ছবিসহ প্রধান পরিচালকের বরাবরে সুপারিশ পেশ করবেন।
২. কেন্দ্রীয় কর্মীপরিষদে আলোচনা সাপেক্ষে শুধুমাত্র প্রধান পরিচালকই অগ্রপথিক ব্যাজ প্রদান করবেন।
৩. প্রধান পরিচালক অগ্রপথিক ব্যাজ প্রার্থীর সাক্ষাতকারের ব্যবস্থা করবেন।
৪. ব্যাজ বছরের যেকোনোসময় ঘোষণা করা হবে, তবে ব্যাজ ও সনদপত্র আনুষ্ঠানিকভাবে প্রদান করা হবে।
৫. ব্যাজ প্রাপ্ত ফুলকুঁড়ি সাংগঠনিক অনুষ্ঠানাদিতে অধিকতর মর্যাদার অধিকারী হবে।


ব্যাজ বাজেয়াপ্তকরণ
ফুলকুঁড়ি আইন লঙ্ঘন এবং শৃঙ্খলা বিরোধী কাজের জন্য সতর্কীকরণ সাপেক্ষে প্রধান পরিচালক ব্যাজ বাজেয়াপ্ত করতে পারবেন।